Apps

 BIP / বিপ একাউন্ট খোলার নিয়ম ও পদ্ধতি এবং সুবিধা সমূহ জানতে ক্লিক করুন ।

BIP / বিপ একাউন্ট খোলার নিয়মঃ বাংলাদেশ, ইন্ডিয়া পাকিস্তান সহ পুরো বিশ্বের অধিকাংশ মুসলিম দেশগুলোতে ইতিমধ্যে আলোচনা সমালোচনার মুখে এসেছে  বিপ অ্যাপ। তবে বর্তমানে অনেকে আছেন  যারা বিপ এর নাম নতুন করে শুনছেন কিন্তুু তাদের বুঝতে সমস্যা হচ্ছে যে, আসলে বিপ অ্যাপ কি এবং এই বিপ একাউন্টের কাজ কি? কেন বিপ একাউন্ট  ঘিরে এত আলোচনা সমালোচনার এত ঝড় উঠেছে ? এছাড়া  কিভাবে একটি বিপ একাউন্ট খুলবেন? ইত্যাদি সকল প্রশ্ন মনে ঘুরছে। তাদের জন্য আজকের এই পোস্টটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ । এই পোস্টটি সম্পূর্ণ পড়লে বিপ নিয়ে বিস্তারিত সকল কিছু জানতে পারবেন।এবং আপনাদের মনের মধ্যে যে প্রশ্ন গুলো ঘুছে সেগুলোর উত্তর পেয়ে যাবেন। তাহলে চলুন শুরু করা যাক।

BIP / বিপ কি?

ইমু তারপর  হোয়াটসঅ্যাপ এইরকম মেসেজিং সফটওয়্যার গুলোর মত বিপও হলো একটি জনপ্রিয় মেসেজিং সফটওয়্যার সিস্টেম। ইমু এবং  হোয়াটসঅ্যাপ এর থেকে অতিরিক্ত সুবিধা জনক কয়েকটি ফিচার দিয়ে বিপকে অনেকসমৃদ্ধ করা হয়েছে। ইমু ও হোয়াটসঅ্যাপ এর সেরা বিকল্প হিসাবে এই বিপ একাউন্ট ব্যবহার করা হয়। এই জনপ্রিও এ্যাপ এর সাহায্যে আপনি যে কোন টেক্সট, ভয়েস রেকর্ড, অডিও, ভিডিও কলিং এর মাধ্যমে বিশ্বের যে কোন প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তের সকলের সাথে খুব সহজেই  যোগাযোগ করতে পারবেন।এককথায় এটি একটি চ্যাটিং এ্যাপ।বর্তমানে এই এ্যাপটি ইমু এরপর হোয়াটসঅ্যাপ  এর থেকেও খুবই জনপ্রিয়।বর্তমান জেনারেশন এর প্রায় সকলেই এজন্য বিপ একাউন্ট খুলতে খুবই আগ্রহি।কিন্তু অনেকেই জানেনা যে কিভাবে এই একাউন্ট খুলতে হয়।এই পোস্ট টি যদি আপনি সম্পূর্ণ পড়েদেখেন তাহলে আপনিও সহজেই একটি বিপ একাউন্ট খুলতে পারবেন।

বীপকে নিয়ে নতুন করে আলোচনা সমালোচনা করার কারণ

আজ থেকে কয়েকবছর আগেই বিপ এ্যাপটি প্লে স্টোরে লন্স করেছে । দারুণ ডেলিভারিতে ফিচার দিয়ে অত্যাধুনিক ভাবে সমৃদ্ধ করার পরও এই এ্যাপসটি জনপ্রিয় হয়ে উঠেনি । কেননা ইমু, হোয়াটসঅ্যাপ এর মত মেসেজিং সফটওয়্যার দিয়েই সুন্দর ভাবে আমরা একে অপরের সাথে খুব সহজেই  যোগাযোগ  করতে পারতাম। কিন্তু, আমরা সকলেই জানি ইমুতে অস্লিল ভিডিও বেশি থাকে।তাই ইমুর এই অতিরিক্ত সব অশ্লীল ভিডিও বিজ্ঞাপন দেখতে দেখতে ইউজাররা একদমই বিরক্ত হয়েগিয়েছে । তাই আমার মত অনেকেই আছে যারা  ইমু ব্যবহার করা ছেড়ে দিয়েছেন বা দিতে চাচ্ছেন।

অন্য দিক জনপ্রিয় মেসেজিং সফটওয়্যার হিসেবে  হোয়াটসঅ্যাপ এর নতুন ট্রান্স অপ কন্ডিশন এর মধ্যে বেশকিছু  পরিবর্তন দেখা দিয়েছে, এবং জানা গেছে তারা গ্রাহকের  সকল তথ্য সংগ্রহ করে রাখবে।অথ্যাৎ তারা তাদের কাস্টমারদের কে সবসময় মনিটরিং এ রাখবেন।এছাড়াও এর আগেও হোয়াটসঅ্যাপ এর বিরুদ্ধে গ্রাহকদের অনেক তথ্য চুরি করে চওড়া দামে বিক্রি করার অভিযোগ তুলেছে ও প্রমান ও তুলেধরেছে অনেকে। মোট কথা মেসেজিং সফটওয়্যার গুলোর প্রতি চরম হতাশা ও ঘৃণা নিয়ে তৈরি হয়েছে  নতুন একটি ম্যাসেজিং সিস্টেম আর সেটা হলো বিপ এ্যাপস।আর তাই,     বর্তমানের সবচেয়ে জনপ্রিয় মুসলিম শাষক এরদোয়ান ঘোষণা দিয়েছে ইমু, হোয়াটসঅ্যাপ বয়কট করে বিপ একাউন্ট খোলার জন্য এবং এটি ব্যাবহার করার জন্য। যদিও এই সম্পর্কে সুস্পষ্ট কোন প্রমাণ পাওয়া যায়নি। তবুও, হোয়াটসঅ্যাপ ও ইমুর বিকল্প হিসাবে সকলের বীপ এ্যাপস ব্যবহার করা উচিৎ।

এছাড়াও এর অনেক ভালো সুবিধা রয়েছে। নিচে তা তুলে ধরা হলোঃ

বিপ একাউন্ট খোলার সুবিধা

ক্লিয়ার সাউন্ড সিস্টেম,অশ্লীল বিজ্ঞাপন মুক্ত,তুলবামূলক নিরাপ, ইউজারদের তথ্য সংগ্রহ করা হবে না বলে জানা যায়,

ভার্চ্যুয়াল নাম্বার দিয়ে একাউন্ট খোলা যায়, মুসলিমদের তৈরিকৃত অ্যাপ।সর্বপরি ইমু, হোয়াটসঅ্যাপ থেকে অতিরিক্ত ফিচার সমৃদ্ধ।

বিপ একাউন্ট খোলার নিয়ম

১.প্রথমে প্লে স্টোরে গিয়ে সার্চ করুন বিপ মেসেজিং বা BIp লিখে সার্চ করুন এবং ডাউনলোড দিন।

প্লে স্টোরে গিয়ে সার্চ করুন বিপ

২.সফটওয়্যারটি ডাউনলোড হয়ে গেলে get bip’n এ ক্লিক করুন। এবং পরবর্তী ধাপ কি দেওয়া তা অনুসরণ করুন।

সফটওয়্যারটি ডাউনলোড হয়ে গেলে get bip’n এ ক্লিক করুন।

৩.বিপের প্রাইভেসি পলিসি ভালো করে মনোযোগ সহকারে কয়েকবার ভালো করে পড়ে নিন। এবং পরবর্তী ধাপ অনুসরণ করুন।

বিপের প্রাইভেসি পলিসি ভালো করে মনযোগ সহ কয়েকবার পড়ে নিন।

৪.বিপকে আপনার কল ও পরিচালনা করার অনুমতি দেন। এবং পরবর্তী ধাপ অনুসরণ করুন।

বিপকে আপনার কল ও পরিচালনা করার অনুমতি দেন।

৫.আপনার দেশের সিম কোড (বাংলাদেশঃ- +880) নির্বাচন করুন। তারপর 0 বাদে আপনার নাম্বার দিন, এবং গেট ভিরিপেকশন কোড লেখায় ক্লিক করুন। (আপনি চাইলে ভার্চুয়াল নাম্বার দিয়েও খুলতে পারেন)

আপনার দেশের সিম কোড (বাংলাদেশঃ- +880) নির্বাচন করুন।

৬.ভিপকে আপনার ছবি, মিডিয়া এবং ফাইলে প্রবেশ করার অনুমতি দিন।

ভিপকে আপনার ছবি, মিডিয়া এবং ফাইলে প্রবেশ করার অনুমতি দিন।

৭.আপনার নাম সেট করুন এবং ডোন লেখায় ক্লিক করুন। ব্যাস বিপ একাউন্ট খোলা শেষ।

আপনার নাম সেট করুন এবং ডোন লেখায় ক্লিক করুন।

এবার আপনি সবার সাথে বিপের মাধ্যমে যোগাযোগ করতে পারবেন। আর এটি অনেক আধুনিক হওয়ার কারনে আপনি অনেক সুবিধাও পাবেন।তো পোস্টটি কেমন লাগলো তা অবশ্যই আমাদের কমেন্টে জানাবে।পোস্টটি সম্পূর্ণ পড়ার জন্য সকলকে অসংখ্য ধন্যবাদ। ভালো থাকবেন সকলে।

Related Articles

Back to top button