Games

ফ্রি ফায়ার গেমটির মোট কয়টি সার্ভার রয়েছে জানতে ক্লিক করুন ।

ফ্রী ফায়ার গেমটি বর্তমানে বিশ্বব্যাপী সমস্ত তরুণ-তরুণীদের কাছে জনপ্রিয় একটি গেমের নাম। যা ইতিমধ্যে সবার মনে সাড়া জাগাতে সক্ষম হয়েছে।ফ্রী ফায়ার বর্তমানে খুব জনপ্রিয় একটি গেম। এই গেম খেলতে হলে অবশ্যই মোবাইলে ইন্টারনেট সংযোগ থাকতে হবে। ইন্টারনেট সংযোগের মাধ্যমে আপনি খুব সহজে এই গেমটি খেলতে পারবেন।কারন এটি একটি অনলাইন Battle Royale game, যেখানে মূলত ম্যাচটি শুরু হবে আপনি আপনার বন্ধু-বান্ধব এবং বিশ্বের অন্যান্য প্রান্ত থেকে যে সমস্ত প্লেয়ার এই গেমটি খেলতে এসেছে তাদের মধ্যে থেকে ৫০ জন কে নিয়ে।এবং গেমটিতে ওই ব্যক্তি জয়লাভ করবে যে সবাই মরে যাওয়ার পরেও শেষ অব্দি গেমটিতে টিকে থাকবে, এবং তার জন্য পুরস্কার হিসেবে থাকবে Booyah! ফ্রী ফায়ার আপনি দুইভাবে খেলতে পারবেন। আপনি যদি চান তাহলে একক ভাবে খেলতে পারবেন এবং চাইলে দুইজন বা চাইলে চারজন এক সাথে খেলতে পারবেন। এই গেমটি আপনি বিশ্বের যেকোনো জায়গা থেকে খেলতে পারবেন এবং বিশ্বের যে কারোর সাথে খেলতে পারবেন।

ফ্রি ফায়ার কেন দেশের তৈরি

 ফ্রী ফায়ার মূলত সিঙ্গাপুর এর কিছু ডেভলপার, যাদের অক্লান্ত পরিশ্রমে আমরা এই গেমটির স্বাদ উপভোগ করতে পারছি। বর্তমানে ফেসবুকে এই গেমটি Rating হলো 4.6/5 যা নিঃসন্দেহে যেকোনো গেমপ্লে আকর্ষণীয় এবং ভালো হতে পারে , তার একটি উদাহরণ। Free Fire গেমটি অফিশিয়াল ভাবে সিঙ্গাপুর লন্স করেছে।এটি গেরিনা কোম্পানি দিয়ে চালিত করা হয়। অথ্যাৎ এটি গেরিনা কোম্পানির একটি গেম যার মালিক হচ্ছেন ফরেস্ট লি। ফ্রি ফায়ার মূলত একি Android গেম।এটি অনলাইনে খেলা হয়।একটি ব্যাটেল রয়াল যা ১১১ ডটস স্টুডিও দ্বারা বিকাশিত হয়েছে এবং Android এবং Ios জন্য Garena দ্বারা প্রকাশিত হয়েছে।

ফ্রি ফায়ার গেমে কত গুলো সার্ভার রয়েছে

যখন আপনি প্রথম ফ্রি ফায়ার খেলা শুরু করবেন, গেমটি খেলতে আপনাকে একটি অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে হবে। আপনার সমস্ত অ্যাকাউন্টের তথ্য ফ্রি ফায়ার সার্ভারে সংরক্ষিত আছে। সুতরাং যখন আপনি অন্য ডিভাইস ব্যবহার করেন, তখনও আপনি আপনার পুরানো অ্যাকাউন্টের সাথে সংযোগ স্থাপন করতে পারেন। আপনি কোন ম্যাচে প্রবেশ করবেন, আপনার ডিভাইস ফ্রি ফায়ার সার্ভারের সাথে সংযুক্ত হবে এবং ফ্রি ফায়ার সার্ভার একই প্লেয়ারের সকল খেলোয়াড়কে আপনার খেলার জন্য সংযুক্ত করবে।সাধারণত, খেলোয়াড়রা তাদের বর্তমান অবস্থানের সবচেয়ে কাছের সার্ভারে থাকতে হবে। উদাহরণস্বরূপ, পাকিস্তান এবং বাংলাদেশের খেলোয়াড়রাও ভারতীয় সার্ভারে অন্তর্ভুক্ত হবে কারণ এটি তাদের নিকটতম সার্ভার। যাইহোক, খেলোয়াড়রা অন্য সার্ভার হতে বেছে নিতে পারে, কিন্তু এটি সুপারিশ করা হয় না কারণ পিং স্থিতিশীল নাও হতে পারে। এছাড়াও, বিভিন্ন সার্ভার বিভিন্ন ভাষা ব্যবহার করবে যাতে আপনি তাদের ঘটনা বুঝতে এবং অন্য খেলোয়াড়দের সাথে যোগাযোগ করতে সক্ষম হবেন না।

ফ্রি ফায়ারে মোট 12 টি সার্ভার রয়েছে। এটি বিশ্বের 12 টি ফ্রি ফায়ার সার্ভারের সম্পূর্ণ তালিকা

১.ফ্রি ফায়ার সার্ভার মেক্সিকো।

২. ফ্রি ফায়ার সার্ভার ইন্ডিয়া।

৩. ফ্রি ফায়ার সার্ভার ভিয়েতনাম।

৪. ফ্রি ফায়ার সার্ভার ইন্দোনেশিয়া।

৫.ফ্রি ফায়ার সার্ভার ব্রাজিল।

৬. ফ্রি ফায়ার সার্ভার হিরোশিমা।

৭. ফ্রি ফায়ার সার্ভার থাইল্যান্ড।

৮.ফ্রি ফায়ার সার্ভার সিঙ্গাপুর।

৯.ফ্রি ফায়ার সার্ভার নেপাল।

১০. ফ্রি ফায়ার সার্ভার মেনা।

১১. ফ্রি ফায়ার সার্ভার ইইউ।

১২. ফ্রি ফায়ার সার্ভার বাংলাদেশ ।

বর্তমানে ফ্রি ফায়ার ডাউনলোড সংখ্যাঃ অসাধারণ গ্রাফিক্স আর অ্যানিমেশন এর তৈরি গেম হলো গারেনা ফ্রী ফায়ার। এই গেমের যে দারুণ ব্যাপারটি হলো গেমটিতে হাই কনফিগারেশনের মোবাইলের দরকার হয় না। সাধারণ কনফিগারেশনের যেকোনো স্মার্টফোন দিয়েই খেলা সম্ভব।ফ্রী ফায়ার তৈরি করেছে সি- লিমিটেড নামে একটি সংস্থা। সি লিমিটেড সংস্থাটির প্রতিষ্ঠাতা ও সিইও ফরেস্ট লি-র জন্ম চীনে হলেও তিনি এখন সিঙ্গাপুরের বাসিন্দা। এর সাথে তিন একজন বড় ব্যাবসায়ি।বর্তমানে বিশ্বজুড়ে ফ্রী ফায়ার প্রায় ১ বিলিয়ন এর বেশি সক্রিয় ব্যবহারকারী রয়েছে। গেমটিতে নিদৃষ্ট দেশ অনুযায়ী ভিন্ন ভিন্ন সার্ভার এর মাধ্যমে পরিচালনা করা হয়। এর কারণে বর্তমান লোকেশন অনুযায়ী বন্ধু-বান্ধবের সাথে খেলার ক্ষেত্রে যথাযথ করে তোলে।

গেরিনা বর্তমানে ফ্রি ফায়ারের উন্নত সংস্করণে কাজ করছেন । সেটি ফ্রী ফায়ার ম্যাক্স (Garena free fire max) নামে পরিচিত ।

Related Articles

Back to top button