Uncategorized

VPN মানে কি? ভিপিএন ব্যবহারের নিয়ম এবং সুবিধা গুলো

বহুল পরিচিত একটি বিষয়ে আজকের এই পোস্ট। আজকের পোস্টে আমরা আপনাদের সামনে ভিপিয়েন সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করবো। এছাড়াও এই ভিপিএন ব্যবহারের নিয়ম ও সুবিধা গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য থাকবে এই পোস্টে। তাহলে বলা যায় আপনি যদি ভিপিএন সম্পর্কে বিস্তারিত জানার জন্য আমাদের ওয়েবসাইটে এসে থাকেন তাহলে সঠিক জায়গায় এসেছেন।

আমাদের মধ্যে অনেকেই জানি না ভিপি এন মানে কি। আসলেই কি এটি একটি নামমাত্র। একসময় ভিপিএন এর মাধ্যমে মানুষ ফ্রি ইন্টারনেট ব্যবহার করেছিল এ ক্ষেত্রে অনেকেই এই বিষয়টিকে ধরে নিয়ে থাকে যে ভিপিএন হচ্ছে ফ্রি ইন্টারনেট ব্রাউজিংয়ের একটি পদ্ধতি। এটি একদম সত্য নয় । তাহলে ভিপিএন আসলে কি এই বিষয়ে আজকের এই পোস্ট।

যারা এই বিষয়ে বিস্তারিত জানেননা তারা অবশ্যই পুরো পোস্টটি মনোযোগ সহকারে পড়বেন আমরা চেষ্টা করব আপনাকে এ বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য দিয়ে সহযোগিতা করার।

বিপিএল মানে কি

অনেকের মনে এই প্রশ্ন, বিপিএল মানে কি কিংবা ভিপিএন কি। ভিপিএন ব্যবহার করলেও অনেকে এই সম্পর্কে কিছু জানে না। তারা এই পোস্টের মাধ্যমে জানতে পারবেন ভিপিএন মানে কি অথবা ভিপিএন কি। প্রথমেই জানিয়ে রাখি ভিপিএন হচ্ছে এটির সংক্ষিপ্ত রূপ । VPN এর সম্পূর্ণ নাম হলো virtual private network. এখন কথা হচ্ছে virtual private network মানে কি ? এটির বাংলা অর্থ হচ্ছে ভার্চুয়াল প্রাইভেট নেটওয়ার্ক। সহজভাবে নিলে আপনি বলতে পারেন প্রাইভেট নেটওয়ার্ক কিংবা পার্সোনাল নেটওয়ার্ক। আশা করি আপনি বিষয়টি বুঝতে পেরেছেন। হঠাৎ এখান থেকে জানতে পারলেন ভিপি এন মানে কি।

ভিপিএন ব্যবহারের নিয়ম এবং সুবিধা গুলো

এখানে আপনি যে বিষয় সম্পর্কে জানতে পারবেন। সেটি হচ্ছে ভিপিএন ব্যবহারের নিয়ম এবং সুবিধা গুলো সম্পর্কে বিস্তারিত । প্রথমেই আমরা ভিপিএন ব্যবহারের সুবিধাগুলো সম্পর্কে আলোচনা করি। ভিপিএন ব্যবহারের অনেক সুবিধা রয়েছে। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য কিছু সুবিধা আপনাদের সামনে তুলে ধরব। আপনি যদি আপনার ফোনে ডাটা সুরক্ষিত রাখতে চান তাহলে ভিপিএন ব্যবহার করতে পারেন। অর্থাৎ আপনি এমন কিছু ওয়েবসাইটে ভিজিট করবেন যেখানে আপনার ডাটা কালেক্ট করতে পারে।

এধরনের ওয়েবসাইটে ভিজিট এর পূর্বে আপনি যদি ভিপিএন ব্যবহার করেন তাহলে আপনার ফোনে ডাটা সুরক্ষিত থাকবে। এছাড়া আপনি চাইলে আপনার পরিচয় লুকিয়ে রাখতে পারেন ভিপিএন এর মাধ্যমে। ভিপিএন এর সবচেয়ে উপকারী দিক হলো এমন কিছু ওয়েবসাইট রয়েছে যেগুলোতে কিছু লোকেশন অর্থাৎ দেশ বা জায়গা থেকে প্রবেশ নিষেধ। এই ধরনের ওয়েবসাইটে ভিপিএন ব্যবহারের ফলে আপনি খুব সহজেই প্রবেশ করতে পারবেন। বেশি সংখ্যক লোক মূলত এই কাজ গুলোর জন্যই ভিপিএন ব্যবহার করে থাকে।

এছাড়াও অনেকেই ইন্টারনেট আইপি পরিবর্তনের ক্ষেত্রে ভিপিএন ব্যবহার করে থাকেন। এইসকল ক্ষেত্রের বাইরে কিছু ওয়েব সাইট অথবা অ্যাপস রয়েছে যেগুলো আপনার দেশে অবৈধ আপনারা এখান থেকে ওই অ্যাপসগুলো ব্যবহার করতে পারবে না সে সকল ওয়েবসাইট এর সুবিধা গ্রহণ করতেন পারবেন না। এ সকল ক্ষেত্রে আপনি চাইলে ভিপিএন এর মাধ্যমে খুব সহজেই ব্যবহার করতে পারবেন।

ভিপিএন ব্যবহারের ক্ষেত্রে তেমন কোনো নিয়মাবলী নেই। এটি ব্যবহার ক্ষেত্রে প্রায় সকলেই ফ্রি ভার্সন ব্যবহার করে থাকেন। আপনি যদি মোবাইল ফোন থেকে ভিপিএন ব্যবহার করতে চান। তাহলে ভিপিএন অ্যাপস ইন্সটল করে কান্ট্রি সিলেক্ট করে কানেক্ট করে নেওয়ার জন্য বলা হইল।

আশাকরি ভিপিএন সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য দিয়ে আপনাদের সহযোগিতা করতে পেরেছি। অনেকেই এটি ব্যবহার করার পরেও এই সম্পর্কে বিস্তারিত জানেন না। আজকের এই পোস্টের মাধ্যমে তারা জেনে গেল ভিপিএন সম্পর্কে বিস্তারিত সকল তথ্য।

Related Articles

Back to top button